Breaking News

একটি ব্রেকআপ প্রেমেরগল্প


ব্রেকাপের দুইদিন পর ছেলেটা গিয়ে হঠাত্‍ করে মেয়েটাকে শক্ত করে জড়িয়ে ধরে।মেয়েটা চমকে উঠে পিছনে তাকিয়ে দেখে
ছেলেটা তাকে জড়িয়ে ধরে আছে।মেয়েটা খুব অবাক হয়ে যায়।।।
যে ছেলে রিলেশনে থাকা কালিন তার হাত ধরতে গেলে ভয়ে হাত কাঁপতো,সেই ছেলে আজ তাকে শক্ত করে জড়িয়ে ধরেছে,তাও ব্রেকাপের পর!!মেয়েটা নিজেকে ছাড়িয়ে নিয়ে চোখ মুখ কঠোর করে বললো,,কি হচ্ছে এটা??ছেলেটা সরল ভাবে উত্তর দিল-ভালোবাসি তো।।মেয়েটা রেগে গিয়ে বললো,,খবরদার বদ পোলা আমার সামনে ন্যাকামি করবা না!ছেলেটা আরো সরল ভাবে বললো,,ভালোবাসি,ন্যাকামি করতে যাব কেন?মেয়েটা আরো এক ধাপ রেগে গিয়ে বললো,,-কিসের ভালোবাসা?ব্রেকাপের পর কোন ভালোবাসা থাকতে পারে না।তোমার মত বদ ছেলেকে আমি আর একটুও ভালোবাসি না!
তোমার সাথে আমার কোন সম্পর্ক নাই।মেয়েটার রাগ দেখে ছেলেটা ভয়ে মিনমিন করে বললো,,
-এহ্ বললেই হলো আর ভালোবাসি না।ভালোবাসা কি এতই সস্তা নাকি যে ব্রেকআপ বললেই সব শেষ হয়ে যাবে?ছেলেটা মুখে এই কথা শুনে মেয়েটা চোখ রাঙিয়ে বললো,,কি বললা তুমি?
-না মানে বলছিলাম কি ব্রেকআপ তো তুমি করেছো তাই আমার জন্য তোমার মনে কোন ভালোবাসা নাই,শুধু রাগ আছে।তবে এতে আমার খুব একটা সমস্যা হবে না,আমার মনে যে পরিমান ভালোবাসা আছে সেটা তোমার রাগের সাথে পাল্লা দিয়ে সুন্দর মত চলে যাবে দুজনের।
রাগময় ভালোবাসা হবে আমাদের।
ছেলেটার বোকা বোকা কথা শুনে মেয়েটার রাগ অনেকটা কমে যায়।এই বোকা ছেলেটাকে যে রাগের আড়ালে কি পরিমান ভালোবাসে মেয়েটা,সেটা কোনদিনও বোকা ছেলেটাকে বুঝতে দেয় না।মেয়েটা রাগি কন্ঠে বললো,,
খবরদার আমার আশেপাশে ঘুরঘুর করবে না।তোমার সাথে যা ছিল সব শেষ!বাড়িওয়ালার ছেলেটা বেশকিছুদিন ধরে আমার পিছু ঘুরছে,গতকাল তো প্রোপজও করেছে!ভাবছি আর এক সপ্তাহ ঘুরিয়ে প্রোপজালটা এক্সেপ্ট করে নিব!মেয়েটা মুখে এই কথাটা শুনে ছেলেটার চেহারায় কষ্টর একটা ছাপ ফুটে উঠে।চোখ দুটো ছল ছল করে উঠে।অসহায় দৃষ্টি নিয়ে মেয়েটার দিকে তাকিয়ে থাকে!মেয়েটা খুব ভালোকরে বুঝতে পারছে তার বলা মিথ্যা কথাটা ছেলেটার ভিতরে গিয়ে আঘাত করছে।এইটা দেখে মেয়েটার ভীষন মায়া হয়।রাগটাকে আর ধরে রাখতে পারে না।কান্না চলে আসে।অনেক কষ্টে কান্না চেপে ছেলেটার দিকে তাকায়।ছেলেটা বোকা একটা হাসি দিয়ে বললো,,
-৭ দিন,সেটা তো অনেক সময়। এই ৭ দিন না হয় তোমার সাথে থাকি।
উহু,,
আমাকে তোমার ভালোবাসতে হবে না,শুধু তোমাকে ভালোবাসতে বাধা দিও না প্লিজ!তুমি যখন ভালোবেসে ঐ
গোধূলীর শেষে
ছেলের হাত ধরবে তখন আমি আস্তে করে হারিয়ে যাব।আর কোনদিন তোমার সামনে আসবো না।
ছেলেটার কথা শুনে মেয়েটা আর কান্না চেপে রাখতে পারলো না।ফুঁপিয়ে কেঁদে উঠলো।হাতটা মুঠো করে ছেলেটার দিকে তাক করে বললো,,
আর কোনদিন যদি আমাকে কষ্ট দাও,বদ ছেলে দেইখো তোমাকে আমি কি করি!মেয়েটার কথা শুনে ছেলেটা ভেজা চোখ নিয়ে মেয়েটার দিকে তাকিয়ে থাকে।মেয়েটা ধমক দিয়ে বলল,,
-দাঁড়িয়ে আছ কেন?জড়িয়ে ধরো,আগের থেকে শক্ত করে ধরবা।মেয়েটার কথা শুনে বোকা ছেলেটা লজ্জায় মাথা নিচু করে দাঁড়িয়ে থাকে।মেয়েটা চোখ মুছতে মছতে বললো,,
-কি হলো ধরছো না কেন?ছেলেটা আসতে করে বললো,,
-আমার না ভীষন লজ্জা লাগছে!মেয়েটা আবার চোখ রাঙিয়ে বলল,,
-তখন ধরলে কি করে?
-তখন তো তোমাকে হারানোর ভয়টা এত তীব্র ছিল যে,লজ্জা ভয় কোনটাই কাজ করছিলো না!ছেলেটার এই সব বোকা বোকা কথা শুনে মেয়েটার চোখ আবার জলে ভিজে উঠে।ভেজা চোখ নিয়ে ছেলেটার কলার চেপে ধরে বললো,,
-এখন যদি তুমি আমাকে না জড়িয়ে ধরো,চিরদিনের জন্য ব্রেকআপ করে চলে যাব!ছেলেটা চিত্‍কার করে বলে উঠলো,,
-এই না না আমি তোমাকে জড়িয়ে ধরব।
ছেলেটা মেয়েটাকে খুব শক্ত করে জড়িয়ে ধরে।আর মেয়েটা ছেলেটার বুকে মুখ লুকিয়ে মনে মনে বললো,,
-তোমার এই জড়িয়ে ধরার জন্য হলেও রোজ
একবার করে ব্রেকআপ করবে আর বোকা ছেলেটির বুকে কান্না ভরা মুখ লুকোবে।।।

No comments